certifired_img

Books and Documents

Forward this page

Thank you for your interest in spreading the word on New Age Islam.
Your Email:
Your Name:
Send To: (To send to multiple addresses, please separate e-mail IDs with commas.)
Your Personal Message:
You are going to email the following:

কলকাতার এক মাদ্রাসা শিক্ষক ও উদারপন্থী লেখক মাসুম আখতার এর ওপর চরমপন্থী ইসলামী মতাদর্শের অবলম্বনকারীদের হামলা আবার প্রমানিত করেছে যে পশ্চিম বাংলায় চরমপন্থী ও ধার্মিক হিংসাবাদ বাড়ছে। পশ্চিম বঙ্গ সব সময় সহনশীলতা এবং ধার্মিক ও সংস্কৃতিক উদার্প্ন্থার কেন্দ্র থেকেছে۔ কয়েক দিন আগে তিনি ক্লাসে ইসলামের ওপর বক্তৃতা দেন. তিনি বলেন যে হয় তো কিছু ছাত্র তাঁর বক্তৃতার বিষয় বস্তুর ভুল ব্যখ্যা করে এলাকায় তাঁর বিরুদ্ধে গুজব ছড়িয়ে দেয়। 26 মার্চ এ লোহার রড ধারী এক মব তাঁর ওপর হামলা করে যার ফলে তাঁর  মাথা ফেটে যায়. তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতাল ছাড়ার পর তিনি চরমপন্থীদের বিরুদ্ধে একটি পুলিশ অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু পুলিশ এ পর্যন্ত কাউকে গ্রেপতার করে নি। এলাকার মুসলিম সমুদায় তাঁর বিরুদ্ধে ধার্মিক ভাবনার ওপর আঘাত করার অভিযোগ তুলে  মাস পিটিশন  দায়ের করেছে। মাসুম আখতার এর কারবালা-র বিষয়ে একটি লেখা গত বছর বাংলা দৈনিক-এ প্রকাশিত হয়ে। এই প্রবন্ধে ধার্মিক নয় একটা এইতিহাসিক দৃষ্টিকোণ ছিল। তার পর থেকে ই তাঁকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়।আবার তিনি গত বছর একটি কাগজে বর্ধমান বিস্ফোরন সম্পর্কে একটি নিবন্ধ লেখেন। এই নিবন্ধে উনি লেখেন যে যদি  কোনো ম্দ্রাসা উগ্রবাদী ঘটনায় লিপ্ত থাকে তার বিরুদ্ধে  আইনি পদক্ষেপ নেয়া হোক।এর ফলে আবার মাদ্রাসা সমাজ তাঁর বিরুদ্ধে খেপে যায়।তিনি বলেন যে দীর্ঘ দিন ধরে এলাকার মোল্লা ও এমাম তাঁর বিরুদ্ধেস্থানীয় এমাম আর মোল্লা মানুষের মধ্যে ভুল ধারনা ছড়াচ্ছে।